কিউআর কোড হচ্ছে বহুল প্রচলিত একটি বারকোড‌। যার দ্বিমাত্রিক এবং আপগ্রেডেড রুপ হচ্ছে এই কিউআর কোড। বারকোড জিনিসটা আমরা কমবেশি সবাই দেখেছি। যেকোনো প্রডাক্টের গায়ে বা বইয়ের পেছনের মলাটে সাদার মধ্যে কালো ডোরাকাটা বেশ কিছুটা লম্বা লাইন থাকে এটিকে বারকোড বলে। Read in English

বারকোড মূলত ব্যবহার করা হয় কোন প্রোডাক্টের আইডেন্টিটি নাম্বার প্রকাশ করার জন্য। সংক্ষিপ্ত যেকোনো তথ্য কে সহজভাবে এবং খুব দ্রুত যন্ত্রের কাছে পঠনযোগ্য করার জন্য এ ধরনের কোডগুলো ব্যবহৃত হয়। অপটিক্যাল মার্ক রিকগনিশন প্রযুক্তি অপটিক্যাল ক্যারেক্টার রিকগনিশন প্রযুক্তি তুলনায় দ্রুত কম ব্যয়বহুল এবং নির্ভুল হওয়ায় কোন তথ্য যন্ত্রের নিকট তুলে ধরার জন্য খুবই উপযুক্ত। বারকোড বা কি আর কোড জাতীয় কোডে ঠিক একই কাজটি করা হয়। যেকোনো ক্যারেক্টারের লেখাকে উপস্থাপন করা হয় মেশিন রিডেবল কিছু মার্ক এর মাধ্যমে।

কিউআর কোড (QR Code)

কিউ আর কোড এর ব্যবহার বারকোড এর মত এত সীমিত পরিসরে নয়। এর ব্যবহার অনেক বিস্তৃত। বার কোডের যেখানে কেবলমাত্র সংখ্যা ও হাতে গোনা কিছু ক্যারেক্টার নিয়ে কাজ করে। সেখানে QR Code সাপোর্ট করে ৪ হাজারেরও বেশি ইউনিকোড ক্যারেক্টার। যার ফলে শুধুমাত্র প্রোডাক্ট আইডেন্টি বা সংখ্যাভিত্তিক কোন কিছু নয় বরং যেকোনো ধরনের শব্দ ব্যবহার করা সম্ভব। আর এসব কারণেই কিউ আর কোড এর বিস্তৃতি হয়েছে ব্যাপকভাবে।

কিউ আর কোড (QR Code) এর ব্যবহার

কিছুদিন আগেও আমাদের দেশে কিউআর কোড এর ব্যবহার খুব বেশি ছিল না বললেই চলে। এখন কিউ আর কোডের ব্যবহার সর্বোত্ত দেখতে পাওয়া যায়। পেমেন্ট সিস্টেম বিশেষ করে মোবাইল ব্যাংকিং সিস্টেম বিকাশের এপ আসার পরে এটির ব্যবহার লক্ষ্যণীয়ভাবে ছড়িয়ে পড়েছে। তবে শুধুমাত্র লেনদেন ব্যবসায়ী কাজের ক্ষেত্রে নয় আপনি চাইলে বিভিন্ন ক্ষেত্রে এই কিউআর কোড ব্যবহার করতে পারেন। যেমন

  • ফোনবুক শেয়ারিং
  • বিজনেস কার্ড শেয়ারিং
  • ওয়াইফাই শেয়ারিং
  • ওয়েবসাইটের ঠিকানা আদানপ্রদান
  • যেকোনো ধরনের লিঙ্ক শেয়ারিং
  • পেমেন্ট সিস্টেম

এসব ক্ষেত্র ছাড়াও আরও হাজার রকমের কাজে ব্যবহার করা যায় কি আর কোড। আপনার প্রয়োজন অনুযায়ী ক্যারেক্টার এর মধ্যে লেখা যেকোনো তথ্য কে প্রকাশ করতে পারেন এই কিউআর কোডের মাধ্যমে। এই কিউআর কোড ক্যামেরা আছে এমন যেকোনো ডিভাইসের কাছে হবে পঠনযোগ্য।

কিভাবে কিউ আর কোড বানাবেন?

স্মার্টফোন কিংবা কম্পিউটার যেকোনো একটি ব্যবহার করে আপনি খুব সহজেই আপনার প্রয়োজন অনুযায়ী কিউআর কোড তৈরি করতে পারেন। আপনি অনলাইন কিংবা অফলাইনে এর মাধ্যমে কিউ আর কোড তৈরি করতে পারবেন। চলুন সেগুলো বিস্তারিত আলোচনা করি

অনলাইনে কিউ আর কোড তৈরি

অনলাইনে অনেক ওয়েবসাইট রয়েছে যেগুলোর মাধ্যমে আপনি কিউআর কোড তৈরি করতে পারবেন। গুগলের সার্চ করলে অনেকগুলো ওয়েবসাইট আপনার সামনে চলে আসবে। কিন্তু ধরতে গেলে কোনো সাইটেই আপনি খুব সহজে কিউআর কোড তৈরীর সকল সুযোগ সুবিধা পাবেন না। তবে আজ আমি আপনাদের সামনে দুটি সাইটের কথা বলব। যেখান থেকে আপনি খুব সহজে ব্যক্তিগত কৌতূহল মেটানোর থেকে শুরু করে প্রফেশনাল ভাবে বা ব্যবসায়িকভাবে কিউআর কোড তৈরি করতে পারবেন।

The-Qrcode-Generator

The-Qrcode-Generator-এখানে গেলে আপনার রেজিস্ট্রেশন এর ঝামেলা নেই, প্রেমেন্ট এরও কোন ব্যাপার নেই। শুধু The-Qrcode-Generator এই ঠিকানায় যাবেন, কি কাজের জন্য কিউআর কোড তৈরি করবেন তা সিলেক্ট করবেন এরপর আপনার তথ্যগুলো লিখবেন তাহলে পাশেই কিউআর কোড জেনারেট হতে থাকবে। আপনার লিখা শেষ হলে সেভ লেখাটির উপর চাপ দিয়ে ফাইল এর একটি নাম লিখে সেভ করে দিলেই ডাউনলোড হয়ে যাবে। খুব সিম্পল এটি ব্যবহার করে যে কেউ কিউআর কোড তৈরি করতে পারবে।

Qr-Code-Generator

এটি প্রফেশনাল বা বিগেনার সবার জন্য উন্মুক্ত একটি ওয়েবসাইট। কিউআর কোডের যত রকমের ফিচার থাকা সম্ভব সবগুলো এই সাইটে পাবেন। একেবারে ঝামেলাবিহীন সিম্পল কিউআর কোড তৈরি থেকে শুরু করে ডিজাইন লোগো যুক্ত ফ্যাক্টর ফরমেটিভ ডাউনলোড এমনকি ডায়নামিক কিউআর কোড তৈরি সুবিধাও রয়েছে এই ওয়েবসাইটে। এই সাইটে আপনি রেজিস্ট্রেশন করে অথবা রেজিস্ট্রেশন ছাড়া দুটি ভাবে ব্যবহার করতে পারবেন। তবে রেজিস্ট্রেশন ছাড়া ব্যবহার করলে মাত্র পাঁচ ধরনের কি বারকোড তৈরি করতে পারবেন। কিন্তু আপনি যদি রেজিস্ট্রেশন করে নেন তাইলে সকল প্রকার ফিচার উপভোগ করতে পারবেন। এবং যেকোন ধরনের কিউআর কোড তৈরি করতে পারবেন। এর জন্য Qr-Code-Generator এই ঠিকানায় প্রবেশ করতে হবে

অফলাইনে কিউ আর কোড কিভাবে বানাবেন

অনলাইনে পেইড, নন পেইড রেজিস্ট্রেশন এসব আসলে একটু ঝামেলার। তবে আপনি যদি ডিজাইন বা লোগো ছাড়া সাধারণ কোডে আপত্তি না থাকে, তবে আপনি, অফলাইন এর সফটওয়্যার কিংবা এ্যাপস উপর ভরসা করতে পারেন।

কম্পিউটারে কোন কিছুর QR Code বানানোর জন্য ডাউনলোড করে ফেলুন নিচের সোর্স লিঙ্গে থাকা সফটওয়ারটি। এটি একদম ফ্রি এবং উইন্ডোজ এর দুইটি ভার্সনে এখানে পাবেন প্রয়োজন অনুযায়ী ডাউনলোড করে ইন্সটল করলেই নির্দিষ্ট অপশন থেকে তৈরি করে নিতে পারবেন আপনার প্রয়োজনীয় কিউআর কোড। ডাউনলোড লিংক এখানে 

আপনি চাইলে আপনার স্মার্ট ফোন থেকেও এই কাজটি করতে পারেন। আপনি যদি অ্যান্ড্রয়েড ইউজার হন তাহলে প্লে স্টোরে (Play Store) গিয়ে Barcode Generator নামে সার্চ করলে আপনি সম্পূর্ণ ফ্রী এ্যাড মুক্ত এপটি পেয়ে যাবেন। বুঝতে অসুবিধা হলে এখান থেকে ডাউনলোড করে নিতে পারেন। ইনস্টল করা হয়ে গেলে ওপেন করে Add Code এরপরে QR Code অপশন থেকে ইচ্ছামতো কিউআর কোড তৈরি করে নিতে পারেন।

Leave a Reply

Your email address will not be published.