বরগুনা সেহরি ও ইফতারের সময়সূচি ২০২৩

বরগুনা সেহরি ও ইফতারের সময়সূচি ২০২৩। আমাদের এই পোস্ট থেকে আপনি আজকের বরগুনা সেহরি ও ইফতারের সময়সূচি ২০২৩ জানতে পারবেন। দীর্ঘ প্রতীক্ষার পর ধর্মপ্রাণ মুসলমান উম্মাহর উপর বরকতময় মাস রমজান এসে পড়েছে। Read in English

সকল ধর্মপ্রাণ মুসলমান উম্মার জন্য রমজান মাস হচ্ছে বছরের সর্বাধিক ফজিলতপূর্ণ একটি মাস। মুসলমান ভাই ও বোনেরা রমজান মাসকে অত্যন্ত গুরুত্বের সাথে পালন করে থাকেন। একজন ধর্মপ্রাণ মুসলমান ব্যক্তি রমজান মাসের সিয়াম পালনের মধ্য দিয়ে আল্লাহর নৈকট্য লাভ করতে পারে। আমরা এই পোষ্টের মাধ্যমে আলোচনা করব বরগুনা সেহরি ও ইফতারের সময়সূচী ২০২৩ নিয়ে। আপনি যদি বরগুনা জেলার সেহরি ও ইফতারের সময়সূচী ২০২৩ খুঁজে থাকেন তবে আপনি ঠিক জায়গায় এসেছেন। এখানে আমরা আলোচনা করেছি বরগুনা সেহরি ও ইফতারের সময়সূচী ২০২৩ নিয়ে। সম্পূর্ণ পোস্টটি পড়লে আপনি বরগুনা জেলার সেহরি ও ইফতারের সময়সূচী ২০২৩ জানতে পারবেন।

আজকের সেহরি ও ইফতারের সময় বরগুনা জেলা ২০২৩

আজকের সেহরি ও ইফতারের সময় বরগুনা জেলা ২০২৩ আমরা আমাদের ওয়েবসাইটে প্রকাশ করেছি। আমাদের ওয়েবসাইট থেকে আপনি আজকে সেহরি ও ইফতারের সময় ২০২৩ বরগুনা জেলা জানতে পারবেন। রমজান মাসের সিয়াম পালনের সাথে আর‌ও একটি গুরুত্বপূর্ণ একটি বিষয় হচ্ছে সঠিক সময়ে সেহরী এবং ইফতার করা। রমজান মাসের রোজা সঠিক ভাবে পালন হবে না, যদি না আপনি সঠিক সময়ে সেহরি ও ইফতার করেন। সুতরাং সঠিক সময়ে সেহরি ও ইফতার করা অত্যন্ত গুরুত্বপূর্ণ একটি কাজ। অত‌এব আপনি যদি সঠিকভাবে সিয়াম পালন করতে চান তবে অবশ্যই আপনাকে সঠিক সময়ে সেহরী এবং ইফতারে করতে হবে। আমরা এই পোষ্টের মাধ্যমে বরগুনা জেলার আজকের সেহরি ও ইফতারের সময়সূচী ২০২৩ আলোচনা করেছি।

বরগুনা জেলা আজকের সেহরির শেষ সময় ২০২৩

বরগুনা জেলা এবং তার পার্শবতীঁ এলাকার সেহরির জন্য আজকে সেহরির শেষ সময় জেনে নিন। বরগুনার আজকে সেহরির শেষ সময় আমরা এই পোস্টের মাধ্যমে আপনাদেরকে জানাবো। আপনি যদি বরগুনা জেলার আজকের সেহরির শেষ সময় ২০২৩ সম্পর্কে জানতে চান তবে এই পোস্টটি সম্পূর্ণ মনোযোগ সহকারে পড়ুন। রমজান মাসের সিয়াম পালনের সাথে সবথেকে গুরুত্বপূর্ণ একটি ইবাদত হচ্ছে সঠিক সময়ে সেহরী করা। সেহরি শব্দটি এসেছে আরবী শব্দ সাহার থেকে যার মানে রাতের বেলার শেষ অংশ। সেহরি শব্দ দ্বারা বুঝানো হয় শেষ রাতের খাবার খাওয়া কে। মহানবী সাল্লাল্লাহু আলাইহি ওয়াসাল্লাম বলেছেন বরকত পাওয়া যায় তিনটি জিনিসের মধ্যে, এরমধ্যে সেহেরী একটি। সুতরাং সেহরির গুরুত্ব অনেক। আমাদের এই প্রতিবেদন থেকে আপনি বরগুনা জেলার আজকের সেহরির শেষ সময় জানতে পারবেন।

আজকে সেহরির শেষ সময় বরগুনা ২০২৩

আজকে সেহরির শেষ সময় বরগুনা ২০২৩ আমরা আমাদের ওয়েবসাইটে প্রকাশ করেছি। আপনারা খুব সহজেই আমাদের ওয়েবসাইট থেকে আজকে সেহরির শেষ সময় বরগুনা ২০২৩ জেনে যাবেন। নবী সাল্লাল্লাহু আলাই সাল্লাম বলেন তোমরা সেহরী করো, কারণ সেহরির মধ্যে রয়েছে বরকত। এটা বাদ দিও না অন্তত এক ডোক পানি পান করো। কারণ আল্লাহ রহমত পাঠান তাদের কাছে যারা সেহরী করছে। এ থেকে আমরা বুঝতে পারি যে সেহরির গুরুত্ব কতটা বেশি। সুতরাং রমজান মাসের সিয়াম পালনের সাথে আমাদের সঠিক সময় সেহরী করা অত্যন্ত গুরুত্বপূর্ণ একটি ইবাদত। আজকে সেহরির শেষ সময় আমাদের ওয়েবসাইট থেকে জেনে নিন।

আজকের ইফতারের শেষ সময় বরগুনা ২০২৩

সেহরি ও ইফতারের সময় ২০২৩

বরগুনা এবং এর পার্শ্ববর্তী এলাকার আজকের ইফতারের সময়সূচি আমরা আমাদের ওয়েবসাইটে প্রবেশ করেছি। আপনি যদি বরগুনা এবং এর পাশাপাশি এলাকার আজকের ইফতারের সময়সূচি অনুসন্ধান করে থাকেন তবে আমাদের এই অনুচ্ছেদ থেকে তা জানতে পারবেন। আমরা এই অনুচ্ছেদের মাধ্যমে বরগুনা এবং এর পার্শ্ববর্তী এলাকার আজকের ইফতারের সময়সূচি সম্পর্কে সঠিক তথ্য উল্লেখ করেছি।
মহানবী হযরত মুহাম্মদ সাল্লাল্লাহু আলাই সাল্লাম বলেন রোজাদার ব্যক্তিরা যেন তাড়াতাড়ি ইফতার করে নেই। অর্থাৎ সূর্যাস্ত হওয়ার সাথে সাথেই আমাদের ইফতার করে নিতে হবে। তিনি বলেন মুসলমানগন যেন তাড়াতাড়ি ইফতার করে নেই কেননা ইহুদীরা দেরিতে ইফতার করে। সুতরাং সকল রোজাদার ব্যক্তিদের সূর্যাস্তের সাথে সাথে ইফতার করা উচিত। নিচে থেকে আপনি আজকের ইফতারের সময়সূচী বরগুনা জেনে নিতে পারবেন।

ঢাকার সাথে বরগুনা জেলার সেহরি ও ইফতারের সময়ের পার্থক্য

আমরা সকলেই জানি যে ঢাকা জেলার সময়ের সাথে অন্য সকল জেলার কিছু নির্দিষ্ট সময়ের পার্থক্য রয়েছে। আর এ পার্থক্য মেনে নিয়ে প্রতিটি জেলা শহরের ইফতার ও সেহরীর সময়সূচী তৈরি করা হয়।

ঢাকার সময়ের সাথে সময় বাড়াতে হবে

জেলার নাম সেহরীইফতার
গাজীপুর, শরিয়তপুর, মাদারীপুর, পিরোজপুর, বরিশাল, ঝালকাঠি, বরগুনা১ মিনিট১ মিনিট
ময়মনসিংহ, টাঙ্গাইল, বাগেরহাট, জামালপুর, শেরপুর, মানিকগঞ্জ২ মিনিট২ মিনিট
ফরিদপুর, গোপালগঞ্জ, সিরাজগঞ্জ, নড়াইল, খুলনা৩ মিনিট৩ মিনিট
মাগুরা, রাজবাড়ি, পাবনা৪ মিনিট৪ মিনিট
সাতক্ষীরা, কুষ্টিয়া, যশোর, রংপুর, ঝিনাইদহ৬ মিনিট৬ মিনিট
নীলফামারী, চুয়াডাঙ্গা, কুড়িগ্রাম, গাইবান্ধা৬ মিনিট৬ মিনিট
রাজশাহী, বগুড়া, মেহেরপুর, লালমনিরহাট৭ মিনিট৭ মিনিট
চাপাইনবাবগঞ্জ, নওগা, নাটোর৮ মিনিট৮ মিনিট
দিনাজপুর, ঠাকুরগাও, পঞ্চগড়১১ মিনিট১১ মিনিট

ঢাকার সময়ের থেকে কমাতে হবে

জেলার নাম সেহরীইফতার
নরসিংদী, নারায়ণগঞ্জ, মুন্সিগঞ্জ, চাদপুর১ মিনিট১ মিনিট
কিশোরগঞ্জ, পটুয়াখালি, ভোলা, লক্ষ্মীপুর২ মিনিট২ মিনিট
নেত্রকোনা, কুমিল্লা, বি-বাড়িয়া৩ মিনিট৩ মিনিট
নোয়াখালী, ফেনী, সুনামগঞ্জ, হবিগঞ্জ৪ মিনিট৪ মিনিট
চট্টগ্রাম৫ মিনিট৫ মিনিট
কক্সবাজার, সিলেট, মৌলভীবাজার৬ মিনিট৬ মিনিট
খাগড়াছড়ি, রাঙ্গামাটি, বান্দরবান৭ মিনিট৭ মিনিট

image

রোজার নিয়ত ২০২৩

রোজা রাখার ক্ষেত্রে মুসলিমদের একটি নির্দিষ্ট নিয়ত রয়েছে। আপনারা অনেকেই রোজার নিয়ত সম্পর্কে অবগত আবার, অনেকে রোজার নিয়ত জানেন না। তবে চিন্তার কোন কারণ নেই আমাদের এই অংশে আপনারা রোজার নিয়ত সম্পর্কে জানতে পারবেন। আপনি যদি আরবি না পেরে থাকেন তবে বাংলাতে রোজার নিয়ত মুখস্থ করতে পারেন। আপনাদের সুবিধার জন্য আমরা আরবি এবং বাংলা নিয়ত নিচে প্রদান করেছি

রোজার নিয়ত : রমজানের রোজার জন্য সুবহে সাদিকের পূর্বে মনে মনে এই নিয়ত করবেন, নাওয়াইতু আন আছুম্মা গাদাম মিন শাহরি রমাজানাল মুবারাকি ফারদাল্লাকা, ইয়া আল্লাহু ফাতাকাব্বাল মিন্নি ইন্নিকা আনতাস সামিউল আলিম।

বাংলায় নিয়ত : হে আল্লাহ! আমি আগামীকাল পবিত্র রমজানের তোমার পক্ষ থেকে নির্ধারিত ফরজ রোজা রাখার ইচ্ছা পোষণ (নিয়্যত) করলাম। অতএব তুমি আমার পক্ষ থেকে (আমার রোযা তথা পানাহার থেকে বিরত থাকাকে) কবুল কর, নিশ্চয়ই তুমি সর্বশ্রোতা ও সর্বজ্ঞানী।

সেহরি ও ইফতারের দোয়া ২০২৩

সেহরি ও ইফতারের জন্য কিছু দোয়া রয়েছে। ধর্মপ্রাণ মুসলমান ব্যক্তিদের জন্য সেহরি ও ইফতারের দোয়া পড়ে সেহরি ও ইফতার করা উচিত। আলোচনা থেকে আপনি সেহরি ও ইফতারের দোয়া জানতে পারবেন। এবং আপনি সেহরি ও ইফতার এর দোয়া মুখস্ত করে সেহরি ও ইফতারের সময় পাঠ করতে পারেন। নিচে সেহরি ও ইফতারের দোয়া দেওয়া হল

সেহরির দোয়াঃ- নাওয়াইতু আন আছুমা গাদাম মিন শাহরি রমাদ্বানাল মুবারকি ফারদ্বল্লাকা ইয়া আল্লাহু ফাতাক্বব্বাল মিন্নী ইন্নাকা আনতাস সামীউল আলীম।

বাংলা অর্থ : হে আল্লাহ! আগামীকাল পবিত্র রমযান মাসে তোমার পক্ষ হতে ফরজ করা রোজা রাখার নিয়ত করলাম, অতএব তুমি আমার পক্ষ হতে তা কবুল কর। নিশ্চয়ই তুমি সর্বশ্রোতা ও সর্বজ্ঞানী।

ইফতারের দোয়া : আল্লাহুম্মা সুমতু লাকা ওয়া তাওয়াক্কালতু আ’লা রিযকিকা ওয়া আফতারতু বিরাহমাতিকা ইয়া আরহামার রাহিমীন।

বাংলা অর্থ : হে আল্লাহ! আমি তোমারই সন্তুষ্টির জন্য রোজা রেখেছি এবং তোমারই দেয়া রিযিক্বের মাধ্যমে ইফতার করছি।

ইফতারের মুনাজাত ও ফজিলত ২০২৩

মোনাজাত কবুল হওয়ার অন্যতম একটি সময় হল ইফতারের সময়। রাসূল সাল্লাল্লাহু আলাইহি ওয়া সাল্লাম বলেন আল্লাহ রোজাদার ব্যক্তির দোয়া কবুল করেন। সুতরাং আমরা ইফতারের সময় মোনাজাত করব এবং আল্লাহর কাছে ক্ষমা চাইবো। দোয়া কবুল হওয়ার অন্যতম একটি মাধ্যম হলো ইফতারের সময়। আল্লাহ তাআলা কোন রোজাদার ব্যক্তিকে খালি হাতে ফিরিয়ে দিতে পছন্দ করেন না। তাই যখন মোনাজাত করা হয় তখন আল্লাহর কাছে বেশি বেশি করে ক্ষমা প্রার্থনা করা উচিত।

রোজার ক্যালেন্ডার ২০২৩

আমাদের এই প্রতিবেদনের শেষ অংশে আমরা আলোচনা করেছি রমজান মাসের রোজার ক্যালেন্ডার নিয়ে। আপনারা আমাদের ওয়েবসাইটে বাংলাদেশের ৬৪ জেলার রোজার ক্যালেন্ডার ২০২৩ পেয়ে যাবেন। এছাড়াও আমরা পোষ্টের এই অংশে রোজার ক্যালেন্ডার ২০২৩ প্রকাশ করেছি। আপনারা খুব সহজেই থেকে রোজার ক্যালেন্ডার ডাউনলোড করে নিতে পারবেন। এখানে আমরা ইসলামী ফাউন্ডেশন কর্তৃপক্ষ কর্তৃক প্রকাশিত রমজান মাসের রোজার ক্যালেন্ডার ২০২৩ প্রকাশ করেছি।

Similar Posts

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *