উচ্চ রক্তচাপ বা ব্লাডপ্রেসার বলতে আমরা একই জিনিস কে বুঝি। এটি বর্তমানে সারা বিশ্বব্যাপী একটি পরিচিত সমস্যা। সারা বিশ্বব্যাপী এই সমস্যাটি এত বেশি বৃদ্ধি পাচ্ছে যে প্রতিটা দেশেই রক্তচাপ রোগীর  সংখ্যা ক্রমশ হারে বৃদ্ধি পাচ্ছে। Read in English

বর্তমান সমীক্ষা অনুযায়ী সারাবিশ্বে ১০০ কোটিরও বেশি মানুষ এই উচ্চ রক্তচাপ রোগে আক্রান্ত। উচ্চ রক্তচাপ একটা মানুষের জন্য কতটা ক্ষতিকর তা বলা বাহুল্য। কিডনি বিকল, স্ট্রোক, হৃদরোগসহ নানা ধরনের রোগের মূল কারণ এই উচ্চ রক্তচাপ। এই রোগকে নীরব ঘাতক বলা হয়। কারণ এই রোগটি একটি মানব শরীরে খুবই আস্তে আস্তে বড় রোগ সৃষ্টি করে। অন্যান্য দেশের মতো বাংলাদেশেও এ রোগী সংখ্যা কম নয়। বাংলাদেশের মোট প্রাপ্ত বয়স্কের ২০ শতাংশের বেশি মানুষ উচ্চ রক্তচাপে আক্রান্ত। তবে এই রোগটি নিজ থেকে নিয়ন্ত্রণ করা যায়। সময়মতো ব্যায়াম ও অন্যান্য শরীর চর্চার মাধ্যমে এ রোগ টাকে পুরোপুরি নিয়ন্ত্রন করা সম্ভব। নিয়মিত শরীরচর্চা করলে হৃদপিন্ড ও ফুসফুস সচল ভাবে কাজ করে এবং রক্ত সংবহন সচল রাখে যার ফলে উচ্চ রক্তচাপ খুব সহজে নিয়ন্ত্রণ করা যায়।

নিয়মিত শরীরচর্চা করে রক্তচাপ নিয়ন্ত্রনে রাখুন

আমরা খুব সহজেই রক্তচাপকে নিয়ন্ত্রণ করতে পারি রক্তচাপ নিয়ন্ত্রণের ফলে আমাদের শরীরের অন্যান্য অংশ বিশেষ যেমন হৃৎপিণ্ড, কিডনি, লিভার এগুলো সচল থাকে। বিভিন্ন দেশে বিভিন্ন বিজ্ঞানীরা এক গবেষণার পর জানান ওষুধের মাধ্যমে রক্তচাপ নিয়ন্ত্রণের করার চাইতে শরীর চর্চার মাধ্যমে রক্তচাপ নিয়ন্ত্রণ অধিক শ্রেয়। আমরা সাধারন যে সকল শরীর চর্চার মাধ্যমে আমাদের রক্তচাপ নিয়ন্ত্রণ করতে পারি- এইগুলো হল সাঁতার, ব্যায়াম, সাইকেলিং নিয়মিত হাঁটা, জগিং ইত্যাদি। তাছাড়া আমরা আমাদের দৈনন্দিন কাজের মাধ্যমে আমাদের কায়িক পরিশ্রম করতে পারি। যেগুলো আমাদের শরীর চর্চার অন্তর্ভুক্ত যেমন-

  • প্রতিদিন কমপক্ষে ৪০ মিনিট হাঁটা
  • বাড়ির ছোটখাটো কাজ করা
  • কল চাপা
  • ঝাড়ু দেওয়া
  • গাড়ির ব্যবহার কম করে হেঁটে কোন স্থানে যাওয়া
  • লিফট ব্যবহার না করে সিড়ি  ব্যবহার করা
  • ছোটখাটো ওজন অন্যকে দিয়ে না তুলিয়ে নিজে সেগুলো বহন করা

তাছাড়া অনেক রক্তচাপের রোগী আছে যারা অনেক ক্ষেত্রেই কায়িক পরিশ্রম করতে পারেন না সুতরাং তাদেরকে ডাক্তারের পরামর্শ অনুযায়ী নিয়মিত ওষুধ খেতে হয়। কিন্তু একটু চেষ্টার ফলে আমরা আমাদের দৈনন্দিন কাজের মাধ্যমে ওষুধ ছাড়া চলতে পারি তাছাড়া এখন বর্তমানে অনেক ফিজিওথেরাপিস্ট ডাক্তার আছে যাদের সাথে আমরা কথা বলে কি ধরনের ব্যায়াম করলে উচ্চ রক্তচাপ থেকে পরিত্রান পাব তার সঠিক পরামর্শ পেতে পারি।

উচ্চ রক্তচাপ এর ক্ষতি

উচ্চ রক্তচাপ কে আমরা খুবই সাধারণভাবে নিয়ে থাকি কিন্তু এর ফলে সৃষ্ট যে সকল রোগ আমাদের দেহে বাসা বাঁধে সেগুলো মোটেউ সাধারণ নয়। হার্টে চর্বি জমা স্ট্রোক হওয়া ইত্যাদি এসকল রোগ গুলোর জন্য একটা মানুষের প্রাণনাশ পর্যন্ত হতে পারে। তাই আমরা যত দ্রুত সম্ভব আমাদের শরীরচর্চার হার বৃদ্ধি করব এবং যত দ্রুত সম্ভব আমরা উচ্চ রক্তচাপের থেকে নিজেকে রক্ষা করব। শরীর চর্চার মাধ্যমে যদি উচ্চ রক্তচাপ নিয়ন্ত্রণ সম্ভব না হয় সেই ক্ষেত্রে ডাক্তারের শরনাপন্ন হতে পারি। তবে নিয়মিত শরীরচর্চার মাধ্যমে আমাদের উচ্চ রক্তচাপ পুরোপুরি নিয়ন্ত্রণে রাখা সম্ভব এবং সেক্ষেত্রে আমাদের কোন ডাক্তারের কাছে যাওয়া নাও লাগতে পারে।

Leave a Reply

Your email address will not be published.