রংপুর জেলা সেহরি ও ইফতারের সময়সূচি ২০২৩

রংপুর জেলা সেহরি ও ইফতারের সময়সূচি ২০২৩ ইসলাম ধর্মের সবচেয়ে গুরুত্বপূর্ণ এবং ফজিলত সমৃদ্ধ মাস হচ্ছে মাহে রমজান। মাহে রমজান একজন মুসলমানের জীবনে গুরুত্বপূর্ণ একটি মাস হিসেবে মান্য করা হয়। এই রমজান মাসে একজন মুসলমান ব্যক্তি সিয়াম পালনের মাধ্যমে আল্লাহর নৈকট্য লাভ করতে পারেন। এই মাসের গুরুত্ব এতটাই যে, বলা হয় যদি কোন ব্যক্তি রমজান মাসে রোজা রাখে এবং দান সদকা করে তাহলে তাকে ছোট শিশুর ন্যায় পবিত্র করে দেওয়া হয়। Read in English

রংপুর জেলার রোজার ক্যালেন্ডার ২০২৩

রমজান মাসের সিয়াম পালনের জন্য সবচাইতে বেশি গুরুত্বপূর্ণ যে বিষয়টি সেটি হচ্ছে সময়। আপনি যদি একজন মুসলিম ব্যক্তি হয়ে থাকেন তাহলে অবশ্যই আপনি বুঝবেন পবিত্র রমজান মাসে সময়ের গুরুত্বটা ঠিক কতখানি। সেহেরী থেকে শুরু করে ইফতার পর্যন্ত এই সময়টা কতটা গুরুত্বপূর্ণ সেটা বলার অপেক্ষা রাখে না। সেহরী এবং ইফতারের ক্ষেত্রে তাই সময় নির্ধারণ কনা অত্যন্ত জরুরী। সঠিক সময় না জানা থাকলে আপনার সিয়াম পালন এর ক্ষেত্রে আপনি ব্যর্থ হতে পারেন। কেননা সেহরী এবং ইফতারের নির্দিষ্ট সময় আছে। যদি এর কমবেশি হয় তাহলে আপনার সিয়াম পালন ব্যর্থ হয়ে যাবে এবং আপনার রোজাটি সঠিকভাবে পালন হবে না।

তাই রংপুর জেলার জন্য সঠিক এবং নির্ভুল সেহরি ইফতারের সময়সূচি আজ আপনাদের জন্য আমরা নিয়ে এসেছি। আমাদের এই প্রবন্ধের মাধ্যমে আপনি আপনার জেলার সঠিক এবং শতভাগ নির্ভুল সেহরী এবং ইফতারের সময়সূচি পেয়ে যাবেন। একজন সিয়াম পালনকারীর ক্ষেত্রে সময় কতটা গুরুত্বপূর্ণ সেটা আমরা বুঝি। তারই ধারাবাহিকতায় আমরা অক্লান্ত পরিশ্রমের ফলে আপনাদের সামনে আপনার জেলার শতভাগ নির্ভুল সেহরি ও ইফতারের সময়সূচি টি উপস্থাপন করতে পারছি। আপনার সিয়াম সাধনা হোক শতভাগ নির্ভুল এবং স্বচ্ছ সে প্রচেষ্টায় আমাদের একান্ত কাম্য।

সেহরি ও ইফতারের সময় ২০২৩

রংপুর জেলার রোজার ক্যালেন্ডার ডাউনলোড

আপনি যদি একজন সিয়াম পালনকারী হয়ে থাকেন এবং আপনি যদি সেহরি ও ইফতারের রোজার ক্যালেন্ডার খোঁজ করে থাকেন তবে আপনি সঠিক জায়গায় এসেছেন। আমরা আপনাদের সিয়াম পালনের সুবিধার্থে এবং আপনাদের অতিরিক্ত চিন্তা কমাতে রোজার ক্যালেন্ডার নিচে দিয়ে রাখলাম। আপনার জেলার রোজার ক্যালেন্ডার পেতে নিচে চোখ রাখুন আশা করি আপনি শতভাগ সঠিক সময় সম্পন্ন ক্যালেন্ডারটি আমাদের কাছ থেকে ডাউনলোড করতে পারবেন।

রংপুর জেলা ইফতারের সময়সূচি ২০২৩

শুধুমাত্র আপনার জেলার ক্ষেত্রেই নয় আমাদের এই সাইটে আপনি ৬৪ জেলা সহ সকল বিভাগ এবং দেশের ক্যালেন্ডার আলাদা আলাদাভাবে পেয়ে যাবেন. যেহেতু আপনি আপনার জেলার ক্যালেন্ডার খুঁজছেন সুতরাং আপনার জেলার রোজার ক্যালেন্ডার টি নিচে দেওয়া হলো। আপনি আপনার প্রয়োজনমতো উক্ত ক্যালেন্ডার টি ডাউনলোড করে নিন। আপনি চাইলে শুধুমাত্র আপনার জেলা নয় বাকি অন্য জেলার ক্যালেন্ডার ডাউনলোড করে আপনার বন্ধুদের উপহারস্বরূপ পাঠাতে পারেন। রমজান ক্যালেন্ডার যদি আপনার প্রয়োজন হয়ে থাকে তাহলে অবশ্যই আপনি আমাদের এখান থেকে ডাউনলোড করে নিতে পারেন।

রংপুর জেলার রোজার সময়সূচি ২০২৩

আমরা আমাদের আজকের এই পোস্টটি মূলত আপনার সুবিধার্থে সাজানোর চেষ্টা করেছি। কেননা সেহরী এবং ইফতারের ক্যালেন্ডার খোঁজার ক্ষেত্রে আপনাদের একটু সমস্যা পোহাতে হয়। রমজান মাসকে মূলত তিনটি গুরুত্বপূর্ণ ভাগে ভাগ করা হয়ঃ রহমত, নাজাত ও মাগফিরাত। আমরা আজকে এই ক্যালেন্ডারে আপনার জেলার ক্ষেত্রে সেই তিনটি ধাপ এবং সঠিক সময় ও তারিখ দিয়ে তৈরি করেছি। রমজানের প্রথম দশ দিনকে রহমতের দ্বিতীয় দশ দিনকে মাগফিরাতের এবং শেষের দশ দিনকে নাজাতের ধরা হয়। আমরা আমাদের ক্যালেন্ডারে রহমত, মাগফিরাত এবং নাজাত এই তিনটি ধাপে আপনার জেলার সময়সূচী সাজিয়েছি।

রংপুর রোজার ক্যালেন্ডার ডাউনলোড পিডিএফ ২০২৩

কেননা বেশিরভাগ ক্ষেত্রেই দেখা যায় প্রত্যেক ক্যালেন্ডারেই ঢাকার সময় দেওয়া থাকে এবং তারসাথে আপনাকে সময় যোগ বিয়োগ করে আপনার সময় টি আপনাকে বের করতে হয়। কিন্তু আমরা আপনাদের প্রতিটি জেলার জন্য আলাদা আলাদা সময় বের করে আপনাদের সুবিধার্থে আপনাদের সামনে হাজির করেছি। যেন আপনাদের রোজার সঠিক সময় বের করতে খুব বেশি সমস্যার মধ্যে না পড়তে হয়। সেহরী এবং ইফতারের সময় আপনার জন্য নিচে দেওয়া হল। আপনি আপনার জেলার জন্য অতিরিক্ত ঝামেলা না পোহায়ে শতভাগ সঠিক ক্যালেন্ডার টি দেখে নিন।

ঢাকা জেলার সাথে রংপুর জেলার সেহরি ও ইফতারের সময়সূচির পার্থক্য ২০২৩

সেহরি এবং ইফতারের ক্যালেন্ডার এর ক্ষেত্রে দেখা যায় আমরা সব সময় ঢাকার সাথে সময় যোগ বিয়োগ করে থাকি। ভৌগোলিক কারণে বাংলাদেশের ৬৪ টি জেলা একই অবস্থানে নেই। বাংলাদেশের ৬৪ জেলার মধ্যে কিছু জেলা এমন আছে যেগুলোর সময়ের সাথে ঢাকার সময়ের কিছুটা ভিন্নতা দেখা যায়। কিছু জেলা আছে সেগুলো জেলার ক্ষেত্রে ঢাকার সময়ের সাথে সেহরী এবং ইফতারের সময় যোগ করতে হয়। এবং এমন কিছু জেলা আছে যেগুলো ঢাকার সময়ের সাথে সেহরি এবং ইফতারের সময় বিয়োগ করতে হয়।

ঢাকার সময়ের সাথে সময় বাড়াতে হবে

জেলার নাম সেহরীইফতার
গাজীপুর, শরিয়তপুর, মাদারীপুর, পিরোজপুর, বরিশাল, ঝালকাঠি, বরগুনা ১ মিনিট ১ মিনিট
ময়মনসিংহ, টাঙ্গাইল, বাগেরহাট, জামালপুর, শেরপুর, মানিকগঞ্জ ২ মিনিট ২ মিনিট
ফরিদপুর, গোপালগঞ্জ, সিরাজগঞ্জ, নড়াইল, খুলনা ৩ মিনিট ৩ মিনিট
মাগুরা, রাজবাড়ি, পাবনা ৪ মিনিট ৪ মিনিট
সাতক্ষীরা, কুষ্টিয়া, যশোর, রংপুর, ঝিনাইদহ ৬ মিনিট ৬ মিনিট
নীলফামারী, চুয়াডাঙ্গা, কুড়িগ্রাম, গাইবান্ধা ৬ মিনিট ৬ মিনিট
রাজশাহী, বগুড়া, মেহেরপুর, লালমনিরহাট ৭ মিনিট ৭ মিনিট
চাপাইনবাবগঞ্জ, নওগা, নাটোর ৮ মিনিট ৮ মিনিট
দিনাজপুর, ঠাকুরগাও, পঞ্চগড় ১১ মিনিট ১১ মিনিট

ঢাকার সময়ের থেকে কমাতে হবে

জেলার নাম সেহরীইফতার
নরসিংদী, নারায়ণগঞ্জ, মুন্সিগঞ্জ, চাঁদপুর  ১ মিনিট ১ মিনিট
কিশোরগঞ্জ, পটুয়াখালি, ভোলা, লক্ষ্মীপুর ২ মিনিট ২ মিনিট
নেত্রকোনা, কুমিল্লা, বি-বাড়িয়া ৩ মিনিট ৩ মিনিট
নোয়াখালী, ফেনী, সুনামগঞ্জ, হবিগঞ্জ ৪ মিনিট ৪ মিনিট
চট্টগ্রাম ৫ মিনিট ৫ মিনিট
কক্সবাজার, সিলেট, মৌলভীবাজার ৬ মিনিট ৬ মিনিট
খাগড়াছড়ি, রাঙ্গামাটি, বান্দরবান ৭ মিনিট ৭ মিনিট
image


রংপুর জেলার ক্ষেত্রে ঢাকার সময়ের সাথে সেহেরির সময় ৬ মিনিট এবং ইফতারের সময় ৬ মিনিট যোগ করতে। হয় আমরা আমাদের ক্যালেন্ডারে আপনার জেলার ক্ষেত্রে সময় যোগ বিয়োগ করে প্রকাশ করে থাকি। সেক্ষেত্রে আপনাকে বাড়তি কোনো ঝামেলা পোহানোর প্রয়োজন নেই।

আশা করি আজকের আমাদের এই প্রকাশনাটি আপনাদের অনেক কাজে আসবে। আপনাদের মূল্যবান সময় অপচয় না হয় আমরা সর্বদাই সে ক্ষেত্রে কাজ করে যাচ্ছি। আমাদের প্রকাশনা সম্পর্কে যদি আপনাদের কোন মতামত থাকে তাহলে অবশ্যই কমেন্ট করে জানাবেন আমরা আপনাদের চাহিদা অনুযায়ী সেবা প্রদান করার চেষ্টা করব।

Similar Posts

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *