ত্বক ফর্সা করার প্রাকৃতিক উপায়: গায়ের রং সাদা বা ফর্সা হলেই যে মানুষটি সুন্দর হবে এমন কোন কথা নেই। তবুও আমরা সবাই চাই গায়ের রং একটু উজ্জ্বল এবং ফর্সা করতে। প্রতিটা মানুষের মনেই নিজের রং কে আরো একটু ফর্সা করার ইচ্ছা থাকে। এবং আমরা সাধারনত গায়ের রং ফর্সা করার জন্য বিভিন্ন উপায় অবলম্বন করি। অনেকেই বিভিন্ন প্যাক বাক্ট্রিম ট্রাই করি শরীরের উজ্জ্বলতা বাড়ানোর জন্য। শরীরের উজ্জ্বলতা বাড়ানোর জন্য যুগ যুগ ধরে বিভিন্ন প্রাকৃতিক ও ঘরোয়া পদ্ধতি অবলম্বন করা হচ্ছে। Read in English

আজকের এই আলোচনার মাধ্যমে আমরা আপনাদেরকে জানাবো এমন কিছু ঘরোয়া এবং প্রাকৃতিক উপায়ে যেগুলোর মাধ্যমে আপনার ত্বক ফর্সা করতে। ত্বক ফর্সা করার প্রাকৃতিক উপায় নিয়েই আমাদের আজকের এই নিবন্ধটি সাজানো হয়েছে। কখনো যদি আপনার মনেও এই ধরনের ইচ্ছা এসে থাকে তাহলে অবশ্যই আজকের এই নিবন্ধটি মনোযোগ সহকারে পড়বেন। সম্পূর্ণ আলোচনা থেকে ত্বক ফর্সা করার প্রাকৃতিক উপায় সংক্রান্ত তথ্য জানতে পারবেন।

Top 5 Online Income sources

ত্বক ফর্সা করার প্রাকৃতিক উপায়

আমাদের আজকের এই আলোচনার মাধ্যমে আমরা মোট 9 টি প্রাকৃতিক উপায় সম্পর্কে আপনাদেরকে জানাবো। এই গুলোর মাধ্যমে আপনারা ঘরোয়া পদ্ধতিতে আপনার ত্বকের যত্ন নিতে পারবেন।

গুড়া দুধ ও লেবুর রসের ফেইসপ্যাক:

প্রথমেই আমরা যে ঘরোয়া পদ্ধতিতে সম্পর্কে বিশ্লেষণ করবো সেটি হল গুড়া দুধ এবং লেবুর রস ব্যবহারের মাধ্যমে কিভাবে ফেসপ্যাক তৈরি করবেন।

উপকরণ সমূহ: দুই চামচ লেবুর রস, আধা চামচ মধু এবং 1 চা চামচ গুড়া দুধ।ত্বক ফর্সা করার প্রাকৃতিক উপায়

প্রস্তুত প্রণালীঃ উপকরণ গুলো ভালভাবে মিশিয়ে নিয়ে পুরো মুখে লাগান। এগুলো মুখমন্ডলের 10 মিনিট রেখে দিন এবং তারপর পরিষ্কার করুন। এই ফেসপ্যাক ব্যবহারের মাধ্যমে আপনার ত্বক আরো উজ্জ্বল হয়ে আসবে। সব ধরনের ত্বকেই এই ফেসপ্যাক ব্যবহার করতে পারবেন।

আলুর খোসার ফেসপ্যাক

লেবুর প্রচুর পরিমাণে ব্লিচিং উপাদান থাকে যার ফলে সেটি ত্বকের জন্য খুবই উপকারী। একইভাবে আলুর খোসাই ব্রিজ উপাদান রয়েছে। আলুর খোসা পেস্ট তৈরি করে নিয়মিত ত্বকে লাগালে ত্বক উজ্জ্বল এবং শেষ হবে। যেকোনো ধরনের ত্বকের ফেসপ্যাক ব্যবহার করতে পারবেন।

Foods that keep us healthy and prolong our life

আমন্ড ফেসপ্যাক

আমন্ড এর ফেসপ্যাক এর মাধ্যমে আপনার ত্বক আরো উজ্জল এবং ফর্সা হয়ে উঠবে। আমন্ডের ফেসপ্যাক ব্যবহার করতে হলে আপনাকে সারারাত চার থেকে পাঁচটি আমন্ড ভিজিয়ে রাখতে হবে। এবং সেটি গুঁড়ো করে বাটার মিল্ক বা মালাই মিশিয়ে আপনার ত্বকে লাগান। 10 থেকে 15 মিনিট আপনার ত্বকে রেখে তারপর ধুয়ে ফেলবেন। ত্বক ফর্সা করতে এই প্যাকটি দারুণভাবে কাজ করবে।ত্বক ফর্সা করার প্রাকৃতিক উপায়

মালাই বা বাটারমিল্ক ব্যতীত আপনি চাইলে মধুবা টক দই ব্যবহার করতে পারবেন। শুষ্ক ত্বকের জন্য এই প্যাকটি দারুণভাবে উপকারী।

কলার ফেসপ্যাক

কলার সাথে এক চামচ মধু এবং এক চামচ টক দই মিশিয়ে ফেসপ্যাক তৈরি করে আপনার ত্বকে ব্যবহার করতে পারেন। এই ফেসপ্যাকটি আপনার ত্বক থেকে রোদে পোড়া কালো ভাব দূর করবে। সব ধরনের ত্বকেই এই ফেসপ্যাক ব্যবহার করতে পারবেন।

টক দই এবং ওটমিলের মাস্ক

টক দই এবং ওটমিলের মাস্ক ব্যবহার করতে হলে আপনাকে এক চামচ ওটমিল সারারাত ভিজিয়ে রেখে সকালে পেস্ট তৈরি করতে হবে। এবং এর সাথে এক চামচ টক দই মিশিয়ে মাস্ক তৈরি করুন। এই মাছ ব্যবহার করার মাধ্যমে নিশ্চিত ভাবে আপনার ত্বক ফর্সা হবে।

Are Animals Can Dream? Are Animals Other than Humans can dream

নিয়মিত এই মাস্ক ব্যবহার করলে আপনার ত্বক আরও কোমল এবং সুন্দর হয়ে উঠবে।

হলুদ এবং টমেটোর ফেসপ্যাক

হলুদ আমাদের শরীরের জন্য দারুণভাবে উপকারী। কাঁচা হলুদ ত্বকে লাগালে আমাদের ত্বক সুন্দর হয়ে ওঠে। উজ্জ্বল ত্বক পেতে এক চিমটি হলুদ এবং 1 চা-চামচ টমেটো বা লেবুর রস মিশিয়ে আপনার ত্বকে লাগাতে পারেন। নিশ্চিত ভাবে এটি আপনার ত্বককে ফর্সা করবে।ত্বক ফর্সা করার প্রাকৃতিক উপায়

এছাড়াও টমেটো ত্বকের কালো দাগ দূর করতে দারুণ কার্যকরী। টমেটোর ব্লিচিং উপাদান আর হলুদের ভেষজ ত্বক ফর্সা করতে দারুণ ভাবে সাহায্য করবে। স্বাভাবিক ত্বকের তৈলাক্ত এবং শুষ্ক ত্বকে এই প্যাকটি ব্যবহার করা যাবে।

চন্দনের তৈরি ফেসপ্যাক

আপনার চোখ যদি তৈলাক্ত হয় তাহলে চন্দনের ফেসপ্যাক টি ব্যবহার করতে পারেন। এই ফেসপ্যাক ব্যবহারের জন্য চন্দ্রের ঘোড়ার সাথে পানি মিশিয়ে পেস্ট তৈরি করে আপনার মুখে লাগান। যতটুকু প্রয়োজন হবে ততটুকুই লাগাবেন এবং এর ফলে আপনার ত্বক প্রাকৃতিকভাবে ফর্সা হবে। চন্দনের ফেসপ্যাক ব্যবহারের মাধ্যমে আপনার ত্বক উজ্জ্বল হওয়ার সাথে সাথে আপনাকে দেখতে অনেক ফ্রেশ লাগবে।

William Shakespeare Famous Quotes

পুদিনা পাতার ফেসপ্যাক

পুদিনা পাতা তে থাকা অ্যাসট্রিনজেন্ট আমাদের ত্বকে পুষ্টি যোগানোর সাথে সাথে ত্বক ফর্সা করে তোলে। পুদিনা পাতার পেস্ট মুখে ব্যবহারের মাধ্যমে আপনার ত্বক আরো উজ্জল হবে। পুদিনা পাতার ফেসপ্যাক ব্যবহার করতে আপনাকে 15 থেকে 20 টি পুদিনাপাতা পেস্ট করে মুখে লাগাতে হবে।ত্বক ফর্সা করার প্রাকৃতিক উপায়

পুদিনা পাতার ফেসপ্যাক ব্যবহারের মাধ্যমে আপনার ত্বকে বয়সের ছাপ আসবেনা। তবে এই পাতায় এলার্জি থাকলে অবশ্যই পুদিনা পাতার ফেসপ্যাক ব্যবহার থেকে দূরে থাকতে হবে

How Many Satellites are There in Space? And How It Works?

বেসন দিয়ে তৈরি ফেসপ্যাক

বেসন আমাদের ত্বক উজ্জল করতে এবং তারুণ্যকে ধরে রাখতে খুব উপকারী। বেসনের সাথে বাটারমিল্ক মিশিয়ে পেস্ট তৈরি করে মুখে লাগান এবং শুকিয়ে গেলে তা ঠাণ্ডা পানি দিয়ে ধুয়ে ফেলুন। তবে তৈলাক্ত ত্বকের ফেসপ্যাক ব্যবহার করা যাবে না।

আজকের এই আলোচনার মাধ্যমে আপনাদেরকে ঘরোয়া পদ্ধতিতে প্রাকৃতিক উপায়ে ত্বক ফর্সা করার কোন উপায় জানানো হলো। যে প্যাকটি আপনার ত্বকের জন্য মানানসই হবে সেটি আপনি ব্যবহার করবেন। আলোচনার কোনো অংশের বুঝতে সমস্যা হলে অবশ্যই আমাদের কমেন্ট করে জানাবেন।

Leave a Reply

Your email address will not be published.