সব খেয়েও ডায়েট করার উপায়: বর্তমান সময়ে সকলেই তাদের শরীর নিয়ে বিশেষ চিন্তিত থাকেন। অনেকেই বিভিন্ন প্রকার ডায়েট মেনে চলেন। আচ্ছা সবকিছু খেয়েও কি ডায়েট করা যায়। আমরা অনেকেই ডায়েটের নামে খাদ্য তালিকা থেকে সকল খাবারই বাদ দিয়ে ফেলি। ওজন বাড়ার ভয়ে পছন্দের খাবারগুলো খেতে পারি না। তবে এইগুলো করা কখনোই উচিত নয়। কারণ একবারেই খাওয়া বন্ধ করে দিলে তা আমাদের শরীরের উপর বিরূপ প্রভাব ফেলতে পারে। Read in English

সকল খাবার বাদ দিয়ে ডায়ে ট করলে শরীর দুর্বল হয়ে পড়তে পারে। তাই আমাদের উচিত খাওয়ার পরিমান কমিয়ে দেওয়া। খাবার পরিমান কমিয়ে দিলে আমাদের ওজন এবং স্বাস্থ্য দুটি ভালো রাখা সম্ভব। আমাদের আজকের এই আলোচনার মূল বিষয় হলো সব খেয়েও ডায়েট করার উপায়। কিভাবে আমরা সকল প্রকার খাদ্য খেলেও ডায়েট কন্ট্রোল করতে পারি সে বিষয়ে বিস্তারিত তথ্যসমূহ আমাদের আজকের এই নিবন্ধের মাধ্যমে আপনাদের সামনে উপস্থাপন করছি। সব খেয়েও ডায়েট করার উপায় সমস সম্পর্কে জানতে হলে অবশ্যই আপনি আমাদের এই নিবন্ধটি সম্পূর্ণ মনোযোগ সহকারে পড়বেন।

অনলাইনে টাকা ইনকাম করার উপায় ( Online Earning Way)

যেভাবে আপনারা সকল খাবার খেয়ে ডায়েট কন্ট্রোল করতে পারবেন সেই সম্পর্কিত বিস্তারিত তথ্যসমূহ আমাদের এই নিবন্ধের মাধ্যমে জানাচ্ছি।

সব খেয়েও ডায়েট করার উপায়

সব ধরনের খাবার খেয়েও ডায়েট করা সম্ভব। শরীর সুস্থ স্বাভাবিক রাখতে হলে অবশ্যই একবারে খাবার খাওয়া বাদ দেয়া যাবে না। সব খেয়েও ডায়েট করার উপায় গুলো জানতে হলে অবশ্যই আপনাকে খাবারের ক্যালরি ব্যালেন্স করা শিখতে হবে। আপনার সারাদিনে কত ক্যালরি প্রয়োজন তা নির্ধারণ করুন। ক্যালরি ব্যালেন্স করে চলতে শিখলে সব খেয়েও ডায়েট কন্ট্রোল করা সম্ভব।

SEE MORE

যদি দুপুরে কোন স্থানে দাওয়াত থাকে তাহলে অবশ্যই সকালে এবং রাতে কম ক্যালভির খাবার গ্রহণ করুন। বিকেলে নাস্তা বাইরে কোথাও সেরে ফেললে রাতের খাবার একদম সাধারণ করে ফেলুন। দেহের প্রয়োজনীয় ভারসাম্য বজায় রেখে ক্যালোরি গ্রহণ করা শিখতে পারলে আপনার শরীর ডায়েট ছাড়াও সুন্দর হবে। ক্যালরি ভাগ করে নেয়া শিখতে হলে অবশ্যই প্রথমে একজন ডায়েটিশিয়ান এর সাথে আলোচনা করবেন।সব খেয়েও ডায়েট করার উপায়-2

আপনার পছন্দের খাবারগুলো অনুযায়ী ডায়েটিেশিয়ানের থেকে একটি তালিকা তৈরি করে নিতে পারেন। সেই তালিকা অনুযায়ী খাবার গ্রহণ শুরু করলে সব খাবার খেয়েও ডায়েট কন্ট্রোল করতে পারবেন।

বাসায় খাবার বানান

আপনার পছন্দের খাবারগুলো অর্থাৎ যে খাবারগুলো আপনি খেতে খুব পছন্দ করেন সেগুলো বাইরে থেকে না কিনে বাড়িতে তৈরি করার চেষ্টা করুন। এর মাধ্যমে আপনি কিছু ক্যালরি কমাতে পারবেন এবং এই সকল খাবার থেকে খাদ্য ঝুঁকিও কমে যাবে। বেশিরভাগ সময়ে বাইরের তৈরি খাবারগুলোতে বিভিন্ন রকমের রং টেস্টিং সল সহ ক্ষতিকর উপকরণ মিশে আকর্ষণীয় করা হয়।

অনেক ক্ষেত্রে একই তেল বারবার ব্যবহার করা হয়। যাতে প্রচুর পরিমাণে স্বাস্থ্যঝুঁকি রয়েছে। এই খাবার গুলো বাসায় বানিয়ে বা ভালোভাবে রান্না করলে অনেক ক্যালরি কমিয়ে ফেলা সম্ভব এবং তেলের পরিমাণ ব্যালেন্স করা সম্ভব।

SEE MORE

রান্নার পরিবর্তন ঘটিয়ে ডায়েট কন্ট্রোল

রান্নার মধ্যে পরিবর্তন এনে অস্বাস্থ্যকর খাবার কেউ স্বাস্থ্যকর করে তোলা সম্ভব। আমরা অনেক সময় কিছু খাবারকে ডুবো তেলে ভেজে থাকি। এ সকল খাবারগুলোকে ডুবো তেলে না ভেজে কম তেলে খায় বা গ্রিল করা সম্ভব। আজকাল ডুবো তেলে ভাজা খাবারগুলো তেল ছাড়া এয়ার ফেয়ার করেও ভেজে নেওয়া যায়। মাছ-মাংসকে বেশি তেলে রান্না না করে কম তেল মসলায় রান্না করা যেতে পারে।

রান্নার ক্ষেত্রে বিভিন্ন পরিবর্তন ঘটিয়ে একই খাবারের অনেক ক্যালরি কমানো সম্ভব হয়। মাছ বা মাংস রান্নার ক্ষেত্রে রান্নার পূর্বে ৫ থেকে ১০ মিনিট সেদ্ধ করে তা নিয়ে ঝরিয়ে নিতে পারেন। এভাবে মাংস থেকে চর্বি অনেকটা কমে যাবে। রান্নার সময় ভিনেগার টক দই পেঁপে বাটা এবং লেবুর রস ব্যবহার করে চর্বির ক্ষতিকার প্রভাব কমাতে পারেন। মাংসের সঙ্গে বিভিন্ন কাঁচা সবজি ব্যবহার করে রান্না করলে লাল মাংসের ঝুমকি কমে আসে।

পরিমাণ মত খাবার গ্রহণ করুন

যে কোন অবস্থাতে পরিমাণমতো খাবার গ্রহণের অভ্যাস করে তুলতে হবে। কোন পরিস্থিতিতে ই মাত্র অতিরিক্ত খাবার খাওয়া যাবে না। যত ভালো বা যত সাদেরি খাবার হোক না কেন একে নির্দিষ্ট পরিমাণ খাবার গ্রহণ করতে হবে। কোন জায়গায় দাওয়াত খেতে গেলে বাড়ি থেকে অল্প কিছু খেয়ে যাওয়ার অভ্যাস গড়ে তুলুন। বাড়িতে স্বাস্থ্যকর কিছু খেয়ে গেলে বাইরে অস্বাস্থ্যকর খাবার গুলো আপনি কম খাবেন। সব খেয়েও ডায়েট করার উপায়-1

SEE MORE

বাড়ি থেকে বের হওয়ার সময় এক মুঠো বাদাম অথবা এক বাটি সালাত খেতে পারেন। এর ফলে আপনার ইচ্ছা করলেও বাইরে গিয়ে অস্বাস্থ্যকর খাবার অতিরিক্ত গ্রহণ করতে পারবেন না।

বৃষ্টির আগমুহূর্তে আকাশের রং কালো দেখায় কেন?

উপসংহার

সব খেয়েও ডায়েট করার উপায়, কিভাবে নিজের পছন্দের খাবারগুলো খেয়েও ডায়েট করা সম্ভব বা প্রতিদিনের মতো সকল খাবার খেয়ে কিভাবে ডায়েট করতে পারবেন সে সংক্রান্ত বিস্তারিত তথ্যাদি আমাদের এ নিবন্ধের মাধ্যমে উল্লেখ করা হয়েছে। আশা করি আপনারা আমাদের এই আলোচনা থেকে আপনাদের প্রয়োজনমতো সকল তথ্য সমূহ সংগ্রহ করে নিতে পারবেন।

এই আলোচনার কোন অংশ বুঝতে সমস্যা হলে অথবা আলোচনা সম্পর্কিত কোন তথ্য জানতে চাইলে অবশ্যই কমেন্টের মাধ্যমে আমাদের। আমরা আপনাকে সকল প্রকার তথ্য জানানোর চেষ্টা করব। স্বাস্থ্য সম্পর্কিত অথবা দৈনন্দিন জীবনযাপন সম্পর্কিত যে কোন তথ্য জানতে চাইলে আমাদের কমেন্ট করে জানাবেন। আমরা আপনাদেরকে সাধ্যমত চেষ্টা করব।

Leave a Reply

Your email address will not be published.