মোবাইল ফোন চার্জ দেওয়ার সঠিক নিয়ম জানুন : বর্তমান সময়ে আমরা এমন এক যুগে বসবাস করছি যেখানে মোবাইল ফোন ছাড়া মানুষ কল্পনা করা খুব কষ্টকর। প্রত্যেকটা পরিবারের সবার কাছে মোবাইল ফোন না থাকলেও পুরো পরিবার অন্তত একটি মোবাইল ফোন রয়েছে। আর বর্তমান যুগের মোবাইল ফোন দিয়ে কথা বলা ছাড়াও অনেক কাজ করা যায়। একটা সময় ছিল যখন একবার চার্জ দিয়ে মোবাইল ফোনটি কি আর বাকি এক থেকে তিন সপ্তাহ চার্জে না লাগিয়ে চালানো যেত। কিন্তু এখন দেখছি টপ টিভি রেডিও সহ অনেক যন্ত্রের প্রয়োজন যেহেতু একজন যন্ত্রেই মিটানোর চেষ্টা চলছে তাই নিয়মিত একে শক্তির জোগান এর ব্যবস্থা করে রাখাটাও জরুরি। Read in English

এ কথা সত্য বর্তমান স্মার্টফোনগুলো অনেক বেশি ক্ষমতা ফিরিয়ে নিয়ে আসে। সেই সাথে এগুলো ফাংশনালিটি ও কিন্তু আগের চেয়ে অনেক বৃদ্ধি পেয়েছে। এই সবকিছু ঠিকঠাক চালাতে ফোনে যথেষ্ট পরিমান চার্জ থাকতে হয়। তো কিভাবে আপনি আপনার শখের স্মার্টফোনটিকে যত্নসহকারে উত্তম ভাবে চার্জ করার ব্যবস্থা করবেন? এই প্রশ্নের উত্তর আমরা আজকের এই পোস্টের মাধ্যমে আপনাদের দিব। তাহলে চলুন আর দেরি না করে এ বিষয়ে বিস্তারিত আলোচনা করা যাক।

স্মার্ট হব কিভাবে? স্মার্ট হয়ে ওঠার সহজ উপায়

কোথায় এবং কিভাবে চার্জ দিবেন?

কোথায় এবং কিভাবে চার্জ দিবেন কথাটা শুনে হয়তো আপনি মনে মনে ভাবছেন কোথায় চার্জ দিব মানে কি ঘরে বসে ফোন চার্জে দিব। কিন্তু আপনাকে এটাও মাথায় রাখতে হবে যে দিনের মধ্যে ২৪ ঘন্টা আপনি বাসায় থাকবেন না আর আপনি যদি হেভি ইউজার হন সেক্ষেত্রে শুধুমাত্র ভাষা অথবা অফিসের বাইরে আপনাকে আপনার ফোন চার্জ দেয়া লাগতে পারে। সে ক্ষেত্রে পাওয়ার ব্যাংক হতে পারে আপনার ভরসা

মোবাইল ফোন চার্জ দেওয়ার সঠিক নিয়ম জানুন

তবে এভারেস্ট পাওয়ার ব্যাংক একটু ধীর গতিতে ফোন চার্জ হয়। আবার আপনি পাওয়ার ব্যাংক চার্জ করতেও ভুলে যেতে পারেন। সে ক্ষেত্রে পকেট এ আপনার ফোন অনুযায়ী একটা চার্জিং ক্যাবল অবশ্যই রাখা উচিত। পাশাপাশি আপনার গাড়ি থাকলে ফোন চার্জ করার জন্য একটি কার চার্জার রাখতে পারেন। যদি আপনার পাওয়ার ব্যাংক বা এক্সট্রা ব্যাটারি ব্যবহার করেন তাহলে ওটার চার্জ শেষ হওয়ার সাথে সাথেই মনে করে আবার ব্যাটারি ফুল করে রাখবেন। মোবাইল ফোন চার্জ দেওয়ার সঠিক নিয়ম জানুন.

সাটেলাইট ও তার ব্যবহার

পাওয়ার ব্যাংক কিনার সময় অবশ্যই একটু বেশি দাম দিয়ে হলেও ভালো মানের পাওয়ার ব্যাংক কিনবেন। এতে আপনার ফোন সুরক্ষিত থাকবে আবার দুই দিন পর পর বদলাতে হবে না। আজকাল বাইরে চলতেফিরতে পাওয়ার ব্যাংক দিয়ে ফোন চার্জ দিতে গেলে অনেক সময় বন্ধুর ফোনের চার্জ দেওয়ার আবদার মেটাতে হয়। সুতরাং এটাও ভাবতে হবে। এজন্য পাওয়ার ব্যাংক কিনার আগে কমপক্ষে দুটো বোট আছে এইরকম দেখে কিনবেন। আর আপনার ফোন যদি ফাস্ট চার্জিং সাপোর্ট করে তাহলে অবশ্যই ফাস্ট চার্জিং সাপোর্টেড পাওয়ার ব্যাংক চার্জার রাখবেন। এছাড়া বিভিন্ন দেশের পাওয়ার সকেট বিভিন্ন রকম তাই দেশের বাইরে ভ্রমণে গেলে অবশ্যই মনে করে একটি মাল্টি সকেট এডেপটর সাথে নিয়ে যাবেন। মোবাইল ফোন চার্জ দেওয়ার সঠিক নিয়ম জানুন

কোন ধরনের পাওয়ার ব্যাংক ব্যবহার করা ফোনের জন্য

ফোন কতক্ষণ চার্জ দেওয়া উচিৎ

এই প্রশ্নটা আমরা সব সময় পেয়ে থাকি। আসলেই প্রশ্নটাকে কখন প্রথম করেছিল তা না বলতে পারলেও অন্তত এটা বলতে পারি এই প্রশ্নটা করেনি এমন লোক খুঁজে পাওয়া খুব মুশকিল। একটা কমন ধারণা হলো ফোন ১০০% ব্যাটারি লেভেল পর্যন্ত চার্জ করা উচিত এবং তা হয়ে গেলে সাথে সাথে চার্জার থেকে ফোন করে ফেলা দরকার। তবে বিশেষজ্ঞরা ভিন্ন কথাই বলেন। আপনি যদি আমাদের ওয়েবসাইটের নিয়মিত ভিজিটর হয়ে থাকেন তাহলে হয়তো আপনার মনে আছে বিশেষজ্ঞের মতামত অনুযায়ী আজকাল স্মার্টফোনগুলোর ব্যাটারি ম্যানেজমেন্ট খুব উন্নত। সুতরাং ১০০% চার্জ হওয়ার পর অটোমেটিক্যালি চার্জার থেকে ফোনের ব্যাটারীতে চার্জ বন্ধ হয়ে যায় তাই এটা নিয়ে কোন চিন্তা ভাবনা করার কারণ নেই।

মোবাইল ফোন চার্জ দেওয়ার সঠিক নিয়ম জানুন

তবে অনেক গবেষকের মতে মোবাইল ফোনের ব্যাটারি তে সব সময় ৪০ থেকে ৮০ ভাগ চার্জ রাখাই উত্তম। অনেকেই আমরা বাস্তব ক্ষেত্রে এই থিউরি ফলো করি না। অন্যদিকে আমাদের কাছে ১০০% চার্জ করা টাই বেশি সুবিধাজনক মনে হয়। সুতরাং এটা নিয়ে খুব বেশি চিন্তিত হওয়ার কারণ নেই সব সময় ফুল চার্জ করলে আপনার ব্যাটারি একদম বাতিল হবে এমনটা নয়। মোবাইল ফোন চার্জ দেওয়ার সঠিক নিয়ম জানুনভালো

জিপি সিমের অফার

চার্জ দেওয়ার সময় কি ফোন চালানো বন্ধ রাখবো?

অনেকেই মনে করেন ফোন যখন চার্যে থাকে তখন ফোন চালানো ঠিক নয়। এই ধারণা একেবারেই ভুল নয়। যার যাওয়ার সময় ফোন না চালানোটাই উত্তম। যদিও সাধারণত চার্জে দেওয়ার সময় ফোন চালানোর দোষের কিছু নয়। তবে ফোন যদি গরম হওয়ার প্রবণতা থাকে তাহলে চার্চে থাকাকালীন এটি চালালে আরো বেশি গরম হতে পারে। আর ফোন অত্যধিক গরম হলে এর বিভিন্ন পার্টস এর সমস্যা হতে পারে। এজন্য চার্জ হয়ে গেলে চার্জ থেকে খুলে তারপর ফোন চালানোটাই উত্তম।

মোবাইলফোন পানিতে পড়ে গেলে কি করবেন

অথরাইজড চার্জার কেবল ব্যবহার করুন

স্মার্টফোন চার্জ দেওয়ার সরঞ্জাম জীবন চার্জার কেবল এসব আপনার ফোনের সাথে সাপোর্টেড কিনা এ বিষয়টি খেয়াল রাখুন। সবচেয়ে ভালো হয় যদি ফোনের সাথে দেওয়া বাপন এর নির্মাতার কাছ থেকে কেনা অরজিনাল সাপোর্টেড সরঞ্জাম ব্যবহার করা যায় তাহলে। এছাড়াও অনেক কাটপাটি কোম্পানিও অথরাইজড ও নিরাপদ চার্জার কেবল প্রভৃতি বিক্রি করে থাকে। আপনি চাইলে সেগুলো ব্যবহার করতে পারেন। তবে অবশ্যই খেয়াল রাখবেন আপনার ফোনের সাথে সাপোর্টেড চার্জার ব্যবহার করতে।

Leave a Reply

Your email address will not be published.