তৈলাক্ত ও তেল চিটচিটে ত্বক থেকে নিজেকে রক্ষা করুন এক মিনিটে।

ঋতুবদলের সাথে সাথে নিজের ত্বকের বাড়তি যত্ন নিন এই সময় থেকেই। ঋতুবদলের সাথে নিজের তৈলাক্ত ত্বকের সামঞ্জস্যতা কিভাবে রক্ষা করবেন সেটা সম্পূর্ণ আপনার উপর নির্ভরশীল। তবে নিজের ত্বককে আপনি কতটা তৈলাক্ত হবার হাত থেকে রক্ষা করবেন তার কিছু নির্দেশনা নিয়ে আজকে আমাদের এই আলোচনা- Read in English

ঋতু পরিবর্তনের সাথে সাথে প্রত্যেকটা মানুষের ত্বকের ও কিছু পরিবর্তন ঘটে। ত্বকের তৈলাক্ততা থেকে শুরু করে ব্রন, রাশ, ফুসকুড়ি ইত্যাদি অনেকটাই ঋতু পরিবর্তনের সাথে সম্পৃক্ত।

ঋতু পরিবর্তনের সাথে ত্বকের যত্ন

শীতের প্রকোপ কিছুটা কমলেও এখনো পুরোপুরি শেয় হয়নি। তাই ত্বকের বাড়তি যত্ন নিন এখনই। ঋতুর পরিবর্তন হচ্ছে বলে আপনি আপনার ত্বকের যত্ন নিবেন না এমনটি নয়। আপনার ত্বকের যত্ন নিতে হবে আপনাকে। শুধু ঋতু পরিবর্তনের সময় নয় বরং সারা বছরই এর জন্য প্রতিদিন কমপক্ষে দুইবার আপনাকে ফেসওয়াশ দিয়ে মুখ ভালো ভাবে ওয়াশ করতে হবে। আপনার ত্বকের সাথে সামঞ্জস্যপূর্ণ কোন একটি ক্রিম ব্যবহার করতে পারেন। আপনার ত্বকের সাথে যায় না এমন কোন ক্রিম ব্যবহার করবেন না। কেননা সে সকল ক্রিম ব্যবহার করলে আপনার ত্বকে তৈলাক্ত ভাব রয়ে যাবে এবং ত্বকের নানা সমস্যা দেখা দিতে পারে। সুতরাং আপনাদের সাথে যেই ক্রিমটি যায় সেটি ব্যবহার করুন। প্রতিদিন দুইবার আপনার ত্বক ফেসওয়াশ দিয়ে ভালোভাবে পরিষ্কার করার পরে ক্রিম গুলো ব্যবহার করুন। প্রতিদিন সকালে এবং রাতে ঘুমাতে যাবার আগে নিয়ম করে ফেস ওয়াস ক্রিম ব্যবহারের ফলে আপনি আপনার তৈলাক্ত ত্বক থেকে খুব সহজেই পরিত্রান পেতে পারেন।Fotolia-69752115-L

ত্বকের যত্নে বিভিন্ন মাস্ক ব্যবহার

তাছাড়া আপনি বিভিন্ন চার্কোল মাস্ক, ফেস মাস্ক, উপটান প্রভৃতি ব্যবহার করে আপনার মুখের তৈলাক্ত ভাব খুব সহজে দূর করতে পারেন। কারন বিভিন্ন রকম ফেস মাস্ক গুলো আপনার ত্বকের বাড়তি তেল গুলো শুষে নেয় এবং ত্বককে তৈলাক্ততার হাত থেকে রক্ষা করে, এবং আপনার ত্বককে করে আরও সুন্দর এবং প্রানোজ্জল। তাছাড়া বিভিন্ন ডাক্তারের মতে একজন প্রাপ্তবয়স্ক মানুষ যদি দিনে গড়ে তিন লিটার পানি পান করে তবে তার ত্বকের রোগ হওয়ার সম্ভাবনা খুবই কম। একজন মানুষ প্রতিদিন পরিমাণ মত পানি পান করলে তার ত্বকে কোন রোগ দেখা দিবেনা, যেমন- ব্রন, ফুসকুড়ি এবং নানান চর্মরোগ।oily-skin-710x400xt


অনেকে মনে করেন শীত চলে গেলে ত্বকের বাড়তি কোনো পরিচর্যার প্রয়োজন পড়ে না। কিন্তু এটি আসলে ভুল ত্বক কে সুন্দর রাখতে হলে প্রতিদিন দুইবার ফেসওয়াশ দিয়ে মুখ পরিস্কার পরেও যদি সম্ভব হয় দিনের জন্য ডে ক্রিম এবং রাত্রে সবার আগে নাইট ক্রিম ব্যবহার করা খুবই জরুরী। এতে করে আপনার ত্বক টি সর্বদাই ত্রিশের কোঠায় গিয়ে আটকে যাবে। নিজেকে মনে হবে সর্বদায় ইয়ং অনেকের মাঝে একটি ভুল ধারণা আছে যে ময়েশ্চারাইজার ক্রিম ব্যবহার করলে তৈলাক্ততার পরিমাণ টা বেড়ে যায় কিন্তু আসলে সেটা নয় নিয়মিত মশ্চারাইজার ক্রিম ব্যবহার করলে আপনার ত্বক নরম থাকে। তবে হ্যাঁ সেটি কোন ঋতুতে কতটুকু ব্যবহার করতে হবে সেটা বুঝে নিতে হবে আপনাকেই। কারণ প্রত্যেকের ত্বক এক রকম নয় নিজের ত্বকের জন্য কতটুকু মশ্চারাইজার ক্রিম ব্যবহার করা উচিত সেটা সম্পর্কে আপনাকে বুঝে নিতে হবে।

Leave a Reply

Your email address will not be published.