গায়ের রং ফর্সা করার উপায়: গায়ের রং ফর্সা করার উপায় সম্পর্কে আমরা অনেক সময় তথ্য জানতে চাই। জন্মগতভাবে আমাদের একেকজনের গায়ের রঙ আলাদা আলাদা হয়। কেউ ফর্সা হয়, কেউ হয় শ্যামলা আবার কেউ হয় অনেক কালো। গায়ের রং একটু চাপা হলে সবারই মন খারাপ হয়। সবাই চাই গায়ের রং আরও একটু উজ্জ্বল করে তুলতে। যে সকল মানুষ গন গায়ের রং ফর্সা করার উপায় জানতে চান তাদের জন্য আমাদের আজকের এই আলোচনাটি। Read in English

অনেক ক্ষেত্রে জন্মগতভাবে ফর্সা ত্বক পেয়েও ধুলাবালি আর ওদের কারণে ত্বক পুড়ে কালো হয়ে যায়। আবার অনেকে ত্বকের উজ্জ্বলতা ধরে রাখতে বিভিন্ন রকমের ক্রিম ব্যবহার করেন। আমাদের আজকের এই আলোচনায় আমরা এমন পাঁচটি ঘরোয়া পদ্ধতি জানাবো যেগুলোর মাধ্যমে আপনার ত্বক সুন্দর করে তুলতে পারবেন। কেমিক্যালযুক্ত বিভিন্ন ক্রিম ব্যবহার না করে এই ঘরোয়া পদ্ধতি গুলো ব্যবহার করার মাধ্যমে আপনার ত্বক আরো সুন্দর করে তুলতে পারবেন। তাহলে চলুন এই পদ্ধতি গুলো সম্পর্কে জেনে নেই।

স্থায়ীভাবে শরীরের লোম দূর করার উপায়

গায়ের রং ফর্সা করার উপায়

গায়ের রং একটু সুন্দর করার জন্য বা ওর জন্য তো ধরে রাখতে আমরা অনেকেই নানারকম ক্রিম ব্যবহার করি। এই সফল ক্রিম গুলো কেমিকাল যুক্ত হওয়ার কারণে সেগুলো তাৎক্ষণিকভাবে আমাদের ত্বক ফর্সা করলে শরীরে একটি বিরূপ প্রতিক্রিয়ার সৃষ্টি করে। যার ফলে বর্তমান সময়ে অনেকেই এই ধরনের ক্রিম থেকে মুখ ফিরিয়ে নিচ্ছেন। গায়ের রং ফর্সা করার উপায়-03

আজকের এই আলোচনার মাধ্যমে মোট পাঁচটি ঘরোয়া পদ্ধতিতে গায়ের রং ফর্সা করার উপায় জানানো হলো। এই পদ্ধতিগুলো অনুসরণ করে আপনি ও আপনার গায়ের রং ফর্সা করে তুলতে পারবেন। তাহলে চলুন পাঁচটি পদ্ধতি সম্পর্কে জেনে নেই।

পেঁপে আর ডিমের মাস্ক

পেপে আর ডিম একসঙ্গে ব্যবহার করলে আপনার ত্বকের রঙ আস্তে আস্তে ফর্সা হবে। সেইসাথে ত্বকে একটি উজ্জ্বল ভাব আসবে। আপনি চাইলে পেঁপে আর ডিমের সাথে দই ব্যবহার করতে পারবেন। এর ফলে আপনার ত্বক ভিতর থেকে পরিষ্কার হবে।

মুখের ব্রণ বা কালো দাগ দূর করার সেরা ক্রিম কোনটি জেনে নিন।

পেঁপে আর ডিমের মাস্ক এর প্রস্তুত প্রণালীঃ তিন চামচ পেঁপের রস, 2 চামচ দই, 4 চামচ অ্যাপেল সিডার ভিনিগার, তিন চামচ আমন্ড অয়েল, গ্লিসারিন ও একটি ডিমের সাদা অংশ নিন। এবার ডিম ও গ্লিসারিন ব্যতীত অন্যান্য সকল উপকরণ গুলি একটি পাত্রে নিয়ে ভালোভাবে মিশ্রিত করুন। ঘন পেস্ট তৈরি হলে ডিপফ্রিজে 2 ঘন্টার জন্য রেখে দিন। ফ্রিজ থেকে বের করে সেই পেষ্টের সাথে ডিমের সাদা অংশ এবং গ্লিসারিন মিশ্রন করুন। এই মিশ্রণটি মুখে মেখে 20 থেকে 25 মিনিট রাখুন তারপর হালকা গরম পানি দিয়ে ধুয়ে ফেলুন।

বেসন আর লেবুর প্যাক

ত্বকের জন্য ব্যাসন খুব উপকারী। বেসন আর লেবুর প্যাক ব্যবহারের মাধ্যমে আপনার ত্বকের রঙ ফর্সা করতে পারবেন।

প্রস্তুত প্রণালী: তিন চামচ বেসন 2 চামচ লেবুর রস 1 চামচ হলুদ গুঁড়া ও সামান্য গোলাপ জল নিয়ে সকল উপকরণ গুলো ভালোভাবে মিশ্রণ করুন। এরপর এই মিশ্রণটি সরাসরি আপনার মুখে লাগাতে পারেন। মুখে মিশ্রণটি শুকিয়ে গেলে হালকা গরম পানি দিয়ে মুখ ধুয়ে ফেলুন। সপ্তাহে দুই দিন এই প্যাক ব্যবহার করলে আপনার ত্বকের উজ্জ্বলতা বেড়ে যাবে। এই প্যাক আপনার ত্বক থেকে যে কোন প্রকার কালো দাগ নির্মূল করতে সক্ষম।গায়ের রং ফর্সা করার উপায়-02

মধু আর লেবুর রসের প্যাক

লেবুতে থাকে সাইট্রিক এসিড আমাদের মুখ পরিষ্কার করে। ত্বকের উজ্জ্বলতা বৃদ্ধি করতে এবং ময়েশ্চার ধরে রাখতে এই প্যাক খুবই প্রয়োজনীয়।

প্রস্তুত প্রণালী: দুই চামচ লেবু আর দুই চামচ মধু মিশ্রন করে মুখে মাখতে হবে। এরপর মিনিট বিশেক মিশ্রণটি রেখে হালকা গরম পানি দিয়ে ধুয়ে নিতে হবে। সপ্তাহে দুই থেকে তিনদিন এই প্যাক ব্যবহার করতে পারবেন।

ত্বক ফর্সা করার প্রাকৃতিক উপায় সমূহ

টমেটো আর মধুর প্যাক

টমেটো মুখের কালো দাগ দূর করতে খুব সহায়ক। রোদে পোড়া দাগ বা মুখের অতিরিক্ত কালো ভাব দূর করতে টমেটো খুব সাহায্য করে। টমেটোর সাথে মধু মিশিয়ে এই প্যাকটি ব্যবহার করতে পারেন।

প্রস্তুত প্রণালী: একটি টমেটো এবং 4 চা চামচ মধু নিন। টমেটোকে আগেই চটকে নিতে হবে। এবার টমেটোর মিশ্রণ এবং মধু মিশিয়ে ভালো করে মিশ্রণ করে মুখে মাখতে হবে। এই প্যাক মুখে প্রায় 20 মিনিট পর তো রাখতে হবে। 20 মিনিট পর হালকা গরম পানি দিয়ে ধুয়ে ফেললে পরিবর্তন আপনি নিজেই দেখতে পারবেন। আপনার ত্বক সঙ্গে সঙ্গেই তরতাজা লাগবে।

স্বামী স্ত্রীর ব্লাড গ্রুপ একই হলে সুবিধা ও অসুবিধা

দুধ আর লেবুর রসের প্যাক

দুধ শরীরের জন্য বা ত্বকের জন্য কতটা উপকারী সেটা আমরা সবাই জানি। দুধ ত্বককে পরিষ্কার রাখে এবং নরম রাখে।গায়ের রং ফর্সা করার উপায়-01

প্রস্তুত প্রণালী: তিন চামচ দুধ, দুই চামচ লেবুর রস, এক-চামচ মধু ও হলুদ গুঁড়া নিন। এবার একটি পাত্রে দুধ নিয়ে সকল উপকরণ গুলো ভালোভাবে মেশান। সুন্দরভাবে মিশ্রিত করা হলে এই প্যাক আপনার মুখে মাখুন। আপনার মুখে এই প্যাকটি শুকিয়ে গেলে হালকা গরম পানি দিয়ে ধুয়ে ফেলুন। মিশ্রণ ধুয়ে ফেলার সঙ্গে সঙ্গেই পরিবর্তন দেখতে পাবেন। সপ্তাহে একদিন করে এই প্যাকটি ব্যবহার করতে পারবেন।

ত্বক ফর্সা করার জন্য বাজার থেকে কেমিক্যালযুক্ত ক্রিম ব্যবহার না করে এই প্যাকগুলো অনুসরণ করতে পারেন। ঘরোয়া পদ্ধতিতে খুব সহজেই আপনার ত্বকের উজ্জ্বলতা বৃদ্ধি করতে পারবেন এই প্যাকগুলো ব্যবহারের মাধ্যমে। স্বাস্থ্য বিষয়ক এমন টিপস পেতে এখনই আমাদের ওয়েবসাইট ভিজিট করতে পারেন।

Leave a Reply

Your email address will not be published.